1. admin@vromontv.com : vromonadmin :
ভ্রমন টিভি। ভ্রমন,ভিসা,ইমিগ্রেশন নিয়ে দেশের প্রথম অনলাইন টিভি।
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৬:৪০ পূর্বাহ্ন
ভ্রমন সংক্রান্ত সর্বশেষ খবর
সিঙ্গাপুর গিয়ে কি কি দেখবেন এবং বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুর এর ভিসা কিভাবে করবেন। (Singapore Visa From Bangladesh) বাংলাদেশ থেকে সুইডেন ভিসা (Sweden Visa From Bangladesh) কিভাবে করবেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা (USA Tourist Visa From Bangladesh) কিভাবে করবেন। জার্মানি ভ্রমন ভিসা করতে চান? জেনে নিন (Germany Tourist Visa) প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস জেনে নিন ইউরোপের শক্তিশালী দেশ জার্মানি (Germany Documentary) সর্ম্পকে। নভোএয়ার এ কক্সবাজার এর টিকেট কিনলে দুই রাত হোটেল ফ্রি। (NovoAir Ticket Offer) অ্যান্টার্কটিকা জয়ের বিস্ময়কর গল্প! এন্টার্কটিকা মহাদেশ ভ্রমন গল্প শুনুন বাঙালি দম্পতির কাছ থেকে। Antarctica Travel বিমানে করে ঘুরে আসতে পারবেন অ্যান্টার্কটিকা (এন্টার্কটিকা) মহাদেশ থেকে। Antarctica Travel এন্টারটিকা মহাদেশ ভ্রমন (Antarctica Travel Tips) সর্ম্পকে ২০ টি অজানা মজার তথ্য। Facts of Antarctica তুরস্ক ভ্রমন ভিসা (Turkey Tourist Visa) করতে চান? জেনে নিন বাংলাদেশ থেকে তুরস্ক যেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন।







অ্যান্টার্কটিকা ভ্রমন করতে চান? । জেনে নিন বিস্তারিত ( Travel to Antarctica)

Travel News
  • Update Time : মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৯৩০ Time View
অ্যান্টার্কটিকা ভ্রমন
অ্যান্টার্কটিকা ভ্রমন







অ্যান্টার্কটিকা(Antarctica) পৃথিবীর  ৭ম মহাদেশ। বরফের চাদরে ঢাকা এ মহাদেশের প্রতি সবারই কম বেশি আকর্ষন রয়েছে। তলদেশে ভূমি আর ভুমির উপড়ে সম্পূর্ণরূপে বরফে আবদ্ধ। অ্যান্টার্কটিকা (Antarctica)  এ বৈশিষ্টই মানুষকে আরোও বেশি আকর্ষিত করে।

অ্যান্টার্কটিকা (Antarctica)  বরফময় প্রান্তরে ঘুরে বেড়াতে এক রোমাঞ্চকর অনুভুতির স্বাদ অনেকেই পেতে চায়। রোমাঞ্চকর এ অভিযানে পেঙ্গুইনের মধ্যে হাঁটা আইসবার্গের পাশাপাশি কায়াক করতে পারেন এমনকি বসে বসে এই আশ্চর্যজনক ল্যান্ডস্কেপের শব্দের সিম্ফনি শুনতে পারেন।

বরফ আছন্ন এ রোমাঞ্চ অ্যান্টার্কটিকা (Antarctica) যারা যেতে চান তাদের জন্য আজকের এ আয়োজন। অনেকেই হয়ত জানেন গবেষকদের সাথে সামরিক বিমানে যাওয়া যায়। তবে আপনি চাইলে আরও সহজে যেতে পারবেন।  আপনাকে যা করতে হবে তা হল  বুয়েনস আইরেস (Buenos Aires), আর্জেন্টিনা (Argentina) বা পান্টা অ্যারেনাস (Punta Arenas), চিলিতে (Chile)পৌঁছানো।এ সকল দেশেই রয়েছে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং বিশ্বের নিয়মিত পরিষেবা ।

অ্যান্টার্কটিকা (Antarctica) সমুদ্রযাত্রার বেশিরভাগই আর্জেন্টিনার (Argentina) উশুয়ায়া (Ushuaia) থেকে ছেড়ে যায় বুয়েনস আইরেস (Buenos Aires) আর সেখান থেকে সাড়ে তিন ঘণ্টার সরাসরি ফ্লাইট। গ্রীষ্মকাল জুড়ে, উশুয়ায়ার (Ushuaia) বন্দর থেকে ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ( Virgin Islands ), ভূমধ্যসাগর (Mediterranean) কিংবা আলাস্কার ( Alaska ) মত যেকোনো বিপদসংকুল পথ নির্বিঘ্নে যাত্রা করে।

আর্জেন্টিনার (Argentina) উশুয়ায়া (Ushuaia) থেকে সমুদ্রপথে যাত্রা করে অ্যান্টার্কটিকায় প্রবেশ করে। এ সময় তারা কুখ্যাত ড্রেক প্যাসেজ (Drake Passage) অতিক্রম করে ।একে একটি ড্রেক প্যাসেজ (Drake Passage) আয়তন ৬০০ মাইল এ অংশটুক জলের অংশ যা দক্ষিণ আমেরিকাকে অ্যান্টার্কটিক উপদ্বীপ থেকে আলাদা করেছে। তবে ড্রেক প্যাসেজ (Drake Passage) যখন বরফ অবস্থায় থাকে তখন এটি পাড়ি দিতে দেড় দিন সময় নেয় আর এ পুরোটা সময় জাহাজে অবস্থান করতে হয় তবে এ দুর্দান্ত অ্যালবাট্রসের মতো বন্যপ্রাণী দেখা পাওয়া যায়।

ভ্রমণকারীরা যদি ড্রেক প্যাসেজ (Drake Passage) এড়িয়ে যেতে চায় তাহলে তারা চিলির (Chile) পুন্টা অ্যারেনাস (Punta Arenas) থেকে সরাসরি অ্যান্টার্কটিক উপদ্বীপের সংলগ্ন একটি দ্বীপের বিমানঘাঁটিতে উড়ে যেতে পারেন। সেখান থেকে, তারা জাহাজে চড়ে পুন্টা অ্যারেনাস (Punta Arenas) ছাড়ার কয়েক ঘন্টা পরে হিমবাহ এবং পেঙ্গুইনের মুখোমুখি দাঁড়াবে।

আর্জেন্টিনার (Argentina) দেখার সর্বোত্তম সময় হল অক্টোবর থেকে মার্চ পর্যন্ত সে সময়ে দক্ষিণ গোলার্ধে থাকে বসন্তের শেষ আর শরতের শুরু। এ সময়ে অ্যান্টার্কটিকায় বরফের সমুদ্র গলে হিমবাহের সৃষ্টি হয় যাতে জাহাজগুলো চলাচলে উপযুক্ত হয়। অক্টোবরের শেষের দিক থেকে গ্রীষ্ম শেষ না হওয়া পর্যন্ত ভ্রমনকারীদের সংখ্যা বাড়তে থাকে। সবচেয়ে মজার ব্যপার হল অ্যান্টার্কটিকায় শরৎকাল শেষ হতে মার্চের মাঝামাঝি পর্য।ন্ত সময় লাগে। বিভিন্ন ঋতুতে অ্যান্টার্কটিকা বিভিন্ন রূপ ধারন করে।

অ্যান্টার্কটিকায় অভিযান কতদিনের?

পেঙ্গুইনের দেশে আপনি কতদিন অভিযান করবেন তা নির্ভর করবে আপনার ভ্রমন পরিকল্পনার উপর। যেমন জাহাজে গেলে অ্যান্টার্কটিকা (Antarctica) পৌছাতে বেশ সময় লাগে আবার উড়োজাহাজে সরাসরি অ্যান্টার্কটিকা (Antarctica) পৌছান যায়। এছাড়া আবহাওয়ার উপরও অনেককিছু নির্ভর করে।

অ্যান্টার্কটিকা (Antarctica) পরিদর্শনের জন্য ফ্লাইট বেছে নিলে অ্যান্টার্কটিক উপদ্বীপ সহ আপনাকে মহাদেশের অনেক জায়গাই নিয়ে যাবে আট দিনের মধ্যে দ্রুত ফিরে আসে। এ মহাদেশর অনেক জায়গা তিন সপ্তাহ বা তার বেশি স্থায়ী হয় না।

সর্বাধিক সাধারণ অভিযানগুলি প্রায় নয় থেকে দশ দিন স্থায়ী হয়, যার মধ্যে অ্যান্টার্কটিকায় পূর্ণ পাঁচ দিনের অভিযান। দক্ষিণ আমেরিকা থেকে উড়ে যাওয়ার পরিবর্তে, যদি সমুদ্রযাত্রা করা যায় তাহলে উশুয়ায়া (Ushuaia থেকে যাত্রা করে ড্রেক প্যাসেজ (Drake Passage) অভিজ্ঞতা নিয়ে পাখি আর তিমির সাথে সাক্ষাত পাওয়া যাবে সহজেই । সমুদ্রে কাটানোর সময়, সমুদ্রের অবস্থা এবং বাতাসের উপর নির্ভর করে পরিবর্তিত হয়, তবে প্রায়ই সমুদ্রে দেড় থেকে দুই দিন সময় লাগে। সমুদ্রযাত্রার বাকি অংশটি অ্যান্টার্কটিক উপদ্বীপের আপাতদৃষ্টিতে অবিরাম উপকূলীয় পরিবেশে কাটানো হয়।

একটু বেশি সময় নিলে অ্যান্টার্কটিকা (Antarctica) মরুভূমির গভীর অন্বেষণ করা যায়। যাদের অদেখাকে আবিষ্কারের তৃষ্ণা বেশি তাদের অভিযানে রয়েছে যা দক্ষিণ মহাসাগর এবং এর অনন্য দ্বীপগুলি অন্বেষণ যা করতে তাদের সময় লাগে বিশ বা তার বেশি দিন । এই বারতি অভিযানের মধ্যে রয়েছে বন্যপ্রাণী সমৃদ্ধ ফকল্যান্ড দ্বীপপুঞ্জ (Falkland Islands) এবং দক্ষিণ জর্জিয়ার (South Georgia)সহ মরুভূমি (Antarctic Peninsula) ভ্রমণ। অ্যান্টার্কটিক উপদ্বীপে কাটানো দিনগুলি ছাড়াও, এই অভিযানগুলিকে তারা অনুসন্ধান করে পৃথিবীর সবচেয়ে নীচের বন্য পরিবেশ।

কেমন হবে অ্যান্টার্কটিকা (Antarctica) জাহাজের অভিযান ?

অ্যান্টার্কটিকায় (Antarctica) রোমাঞ্চকর অভিযানের সর্বোত্তম উপায় হল জাহাজে চড়ে অভিযান। এগুলো সাধারন ক্র্রু জ জাহাজ থেকে ভিন্ন। অভিযানের জাহাজগুলি অনেক ছোট এটা ভ্রমণকারীদের মহাদেশের কাছাকাছি যেতে দেয় তাছাড়া প্রকৃতপক্ষে ভ্রমণ করতে এবং হিমবাহের ল্যান্ডস্কেপগুলিতে পা রাখতে এ জাহাজের বিকল্প নেই।

বড়-বড় জাহাজগুলো অ্যান্টার্কটিকার (Antarctica) অন্যতম আকর্ষন। এ ধরনের জাহাজগুলোতে ৫০০-২০০০ যাত্রী বহন করে। অন্যদিকে ছোট জাহাজগুলিতে ৭০-২০০ যাত্রী বহন করে। আর এ ধরনের অভিযাত্রীক জাহাজের সংখ্যা প্রায় ২০০ টি। ছোট আকারের এ জাহাজগুলো অ্যান্টার্কটিকা (Antarctica) মহাদেশের সকল পর্যটন বিধি মেনে চলে এবং দ্বীপ-উপদ্বীপ সবজায়গাতেই দৈনিক অবতরণ করে সেই সাথে উল্লেখযোগ্যভাবে নানান কাজ-কর্মের জন্য অনুমতি দেয়। এ ছোট জাহাজ গুলো বরফখণ্ড এবং বন্যপ্রাণীর মধ্যে ভ্রমণ করে। এ কথা ঠিক এন্টার্কটিক উপদ্বীপের এই ধরনের অনুসন্ধান বড় জাহাজে সম্ভব নয়।

অ্যান্টার্কটিকায় থাকাকালীন আমি কী করতে পারি?

অ্যান্টার্কটিকায় (Antarctica) অভিযানে জাহাজ থেকে নামা এবং নতুন পরিবেশে অভিজ্ঞতা নেওয়া একটা বড় ব্যাপার। অ্যান্টার্কটিকারক (Antarctica) উপদ্বীপ ফকল্যান্ড দ্বীপপুঞ্জ (Falkland Islands) এবং দক্ষিণ জর্জিয়ার (South Georgia) উপকূলে যাত্রা করার সময় বেশিরভাগ সমুদ্রযাত্রা অন্তত একবার ল্যান্ডফল করে, এই সময় আপনি পেঙ্গুইন এবং সীলগুলির মধ্যে হাঁটতে পারেন, মরুভূমির বিশালতা প্রদিক্ষনের জন্য ভ্যানটেজ পয়েন্ট পর্যন্ত যেতে পারেন এছাড়া হিমবাহ, আইসবার্গ এবং বন্যপ্রাণীর সাথে সময় কাটাতে পারবেন। Zodiac cruises (ছোট নৌকাযাতে মাত্র 12 জন লোক ধারণ করে) করে যেতে পারেন ভাস্কর্য করা আইসবার্গ, সীল, পেঙ্গুইন এবং তিমি সহ সামুদ্রিক প্রানী পরিদর্শনে। যারা অ্যাডভেঞ্চার প্রিয় তারা চাইলে বরফের উপর ক্যাম্পিং করতে পারেন।

অ্যান্টার্কটিকায় ক্যাম্পিং

অ্যান্টার্কটিকায় (Antarctica) গ্রীষ্মের রাতের আকাশের নীচে আপনার স্লিপিং ব্যাগ সেট করে যখন আপনি দেখবেন আপনার অভিযাত্রী জাহাজটি প্রতিবেশী দ্বীপের পিছনে ধীরে ধীরে অদৃশ্য হয়ে হয়ে যাচ্ছে। হিমবাহের আওয়াজ এবং পেঙ্গুইনের কণ্ঠস্বর আরও বেশি শ্রুতিমধুর হয়ে ওঠে যখন আপনি রফের বুকে ক্যাম্পিংকরবেন। বরফআছন্ন বিশুদ্ধ অ্যান্টার্কটিক নীরবতা আপনাকে আরও আছন্ন করবে যখন আপনি ঘুমের মধ্যে চলে যাবেন। এবং সকালে আপনি প্রথম যে দৃশ্যটি দেখতে পাবেন তা হল কাছাকাছি হিমবাহ এবং একটি সুরক্ষিত অ্যান্টার্কটিক কোভের শান্ত জল এবং সম্ভবত একটি বা দুটি পেঙ্গুইন জলের ধারে বিশ্রাম নিচ্ছে। অ্যান্টার্কটিকায় অভিযানের জন্য সত্যিই অনন্য অভিজ্ঞতা।

অ্যান্টার্কটিকায় (Antarctica) স্ট্যান্ড-আপ প্যাডেলবোর্ডিং (Stand-up Paddle boarding)


যদিও অ্যান্টার্কটিকায় (Antarctica) প্রচণ্ড ঠান্ডা হওয়ার জন্য খ্যাতি রয়েছে, তাই ভ্রমনের জন্য গ্রীষ্মকালে অ্যান্টার্কটিকা উপদ্বীপ বেশ উপযোগী থাকে। তাই চাইলে এ সময়ে ভ্রমনকারীরা স্ট্যান্ড-আপ প্যাডেলবোর্ড ( Stand-up Paddle boarding )(SUP) দ্বারা বরফের উপসাগরগুলিতে নেভিগেট করতে পারে। অনেক লোক প্রায়ই SUP বোর্ডিংকে গ্রীষ্মমন্ডলীয় অঞ্চলের সাথে যুক্ত করে, তবে এটি আসলে অ্যান্টার্কটিক আরও ভালোভাবে উপভোগ করার জন্য ভালো মাধ্যম হতে পারে। একটি শান্ত, বিচ্ছিন্ন কোভের মধ্যে দিয়ে প্যাডলিং করা শরীরের নড়াচড়া করার অন্যতম সেরা উপায় হতে পারে । পোর্পোইজিং পেঙ্গুইনের শব্দ এবং কাছাকাছি ভাসমান হিমবাহের টুকরো টুকরোপানির শব্দে। অ্যান্টার্কটিকার জল জীবনের সাথে মিশে এবং আপনার বোর্ডের নীচে বা কাছাকাছি গ্লাইডিং পেঙ্গুইন, তিমি এবং সীলের সাথে ঘনিষ্ঠ মুখোমুখি হওয়া অস্বাভাবিক নয়।

অ্যান্টার্কটিকায় সাগর কায়াকিং ( Kayaking)


অ্যান্টার্কটিকায় (Antarctica) অভিযাত্রীদের জন্য সাগর কায়াকিং ( ( Kayaking) একটি প্রিয় খেলা। স্ট্যান্ড-আপ প্যাডেলবোর্ডিং (Stand-up Paddle boarding) ) মতো, কায়কাররা শান্ত ভাবে ( Kayaking) করতে পারে। আন্টার্কটিকা আসলে কেমন শোনাচ্ছে তাতে হস্তক্ষেপ করার জন্য কোন কাছাকাছি মোটর নেই। কায়কাররা প্রায়শই তাদের দৈনন্দিন দুঃসাহসিক কাজগুলিকে এসইউপি বোর্ডের চেয়ে কিছুটা এগিয়ে নিয়ে যায়, গ্রাউন্ডেড আইসবার্গের ক্যাথেড্রালের মধ্য দিয়ে নিরাপদ রুট নেভিগেট করে এবং হাজার হাজার পেঙ্গুইনের বাসা বাঁধে উপকূলীয় উপকূলে নিঃশব্দে উপকূল থাকে। মাঝে মাঝে, কায়কাররা তাদের প্রাকৃতিক পরিবেশে সামুদ্রিক স্তন্যপায়ী প্রাণীর মুখোমুখি হয়, যেমন সীল বা তিমি। সামুদ্রিক স্তন্যপায়ী প্রাণীদের সর্বদা একটি নিরাপদ দূরত্ব থেকে দেখা হয়, কারণ অপারেটর নির্বিশেষে সমস্ত কায়াকিং প্রোগ্রামের জন্য নিরাপত্তাই সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার। তবে বিশাল সামুদ্রিক স্তন্যপায়ী প্রাণীদের সাথে জল ভাগ করে নেওয়ার সময় কায়কাররা যে অনুভূতিগুলি অনুভব করেন তা অন্তত বলতে গেলে নম্র হয়। অভিজ্ঞতার ধরন যা প্রায়শই বন্যপ্রাণী এবং অন্বেষণের জন্য আজীবন আবেগ তৈরি করে।

স্নোশোয়িং, নতুনদের পর্বতারোহণ, বর্ধিত পর্বতারোহণ এবং কুখ্যাত পোলার প্লাঞ্জ সমস্ত অ্যান্টার্কটিক অভিযানে অন্তর্ভুক্ত করলে এক রোমাঞ্চকর অনুভুতির তৈরী হ










Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




More News Of This Category







© All rights reserved © 2022 VromonTV
Developed By VromonTV